এক আলাদা দূর্গা কিনা, উইঢিপির দূর্গা

এই মুহূর্তে ঢাকের কাঠি

 জয়ন্ত সাহা, খবরইন্ডিয়াঅনলাইন, আসানসোলঃ   বাংলায় দূর্গা পূজা মানে কিছু না কিছু ইতিহাস রয়েছে, তারই সন্ধানে আমরা।
বৈচিত্রে ভরা বাংলার সংস্কৃতির এক উদাহরণ হল জামুরিয়া থানার অন্তর্গত হিজল গড়ার গ্রামের মণ্ডল পরিবারের দুর্গাপূজা। এই যেন এক অন্য দুর্গা! মৃন্ময়ি প্রতিমা পূজিতা হন চিন্ময়ীরূপে। কিন্তু এখানে চিন্ময়ী আত্মপ্রকাশ পায় মৃন্ময়ির আকারে। অর্থ্যাৎ মাটির উইঢিবিকেই মা দুর্গা মেনে পুজো করেন হিজলগড়ার মণ্ডল পরিবার। ৫২ বছরের বেশি সময় ধরে এই পরম্পরা অব্যাহত জামুড়িয়ায়। মায়ের পরিচিত মুখ সঙ্গে লক্ষী,  গণেশ ও স্বরসতী কোন কিছুই স্পষ্ট নয়। কিন্তু প্রকৃতির নিয়মে পুজোর সময় এই উই ডিপি এমনই রূপ নেয় কি যেকোনো মানুষই দেখলেই বুঝতে পারবেন দুর্গা মায়ের সুস্পষ্ট চিত্র তাই এই পুজোয় অঞ্চলের প্রায় সমস্ত মানুষেরা অংশগ্রহণ করেন এই দুর্গাপূজায় সপ্তমী দিনে কোন কলা বউ আছে না এই দুর্গা মায়ের পুজো শুরু হয় অষ্টমীর দিন থেকে শাস্ত্রমতে পুজো হলেও এই মা দুর্গার বিসর্জন হয় না।

 

মণ্ডল পরিবারের বর্তমান কর্তা নিরঞ্জন মন্ডল জানান, ৫০ বছর আগে তার ঠাকুরদা মহেন্দ্র নাথ মন্ডল মারা যাওয়ার পর উনার শ্রাধ্যের দিন দূর সম্পর্কের আত্মীয় তমশা মন্ডলের শরীরে হঠাৎ করে ভরন আসে সেদিন তিনি চুপচাপ থাকলেও পরের দিন ঘরের মধ্যে আগে থেকেই থাকা উইঢিপি তে পূজো করতে শুরু করেন এবং তিনি স্বপ্নাদেশ পান এই উইডিপিটিকে দুর্গা রূপে পুজো করার জন্য।তখন থেকে তমসা দেবির কথা মেনে আজও দূর্গা পূজা হয়ে আসছে।পূর্বে এই উইঢিপি টি খুব বড় আকারের হলেও বর্তমানে উইঢিপির আকৃতি অনেকখানি ছোট হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *